নিজস্ব প্রতিবেদন

নয়াদিল্লি : ভারতের ন্যাশনাল লাইব্রেরিতে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক গবেষণার জন্য স্বীকৃতি পেয়েছে ড. নূরুননবীর লেখা দুটি বই। বাংলাদেশে পাকিস্তানীদের যুদ্ধাপরাধ ও প্রেসিডেন্ট নিক্সন-ড.কিসিঞ্জারের দায় এবং মুক্তিযুদ্ধে ভারত নামের দুটি বই এই স্বীকৃতি পেয়েছে।

ভারতের ন্যাশনাল লাইব্রেরির ইতিহাস-ঐতিহ্য বিভাগে গত ১১ নভেম্বর বই দুটি তালিকাভুক্ত করা হয়। ৩শ বছরের প্রাচীন বিশ্বের বৃহত্তম এই লাইব্রেরি ভারতের কেন্দ্রীয় সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সরাসরি তত্ত্বাবধানে পরিচালিত হয়। বই দুটি তালিকুভুক্তি সাথে যুক্ত ছিলেন এনআরবি ওয়ার্ল্ডের পরিচালক ওমর আলী। তিনি বলেন, গত ১৯ অক্টোবর ২০২১ ইং তারিখে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক গবেষণার জন্য বই দুটি জমা দেওয়া হয়। তারপর ন্যাশনাল লাইব্রেরি ও সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের ইতিহাস-ঐতিহ্য সংরক্ষণ বিভাগের মূল্যায়ন কমিটি মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক গবেষণার জন্য বই দুটিকে স্বীকৃতি দেয়।

ন্যাশনাল লাইব্রেরিতে ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলের ১৩টি ভাষার বই ছাড়াও বাংলা, ইংরেজি, আরবী, রাশিয়ান, চায়নিজ, জার্মান ও ফ্রেঞ্চ ভাষার ৫০ লক্ষাধিক বই ও জার্নাল রয়েছে। বই দুটির লেখক মুক্তিযোদ্ধা ড: নূরুন নবী পেশায় একজন বিজ্ঞানী। তিনি যুক্তরাষ্ট্রে কোলগেট টুথপেস্টসহ ৫৫টি পণ্যের পেটেন্টকৃত আবিষ্কারক। ইংরেজিতে বই ও  লিখেছেন ৫০টি। বাংলা ভাষা ও সাহিত্যে বিশেষ অবদানের জন্য ২০২০ সালে বাংলাদেশ সরকারের ২য় সর্বোচ্চ জাতীয় সম্মাননা একুশে পদক পেয়েছেন। ড. নূরুন নবী ১৯৭১ সালে কাদেরিয়া বাহিনীর সদস্য হিসেবে মুক্তিযুদ্ধে সরাসরি অংশগ্রহণ করেন। যুদ্ধকালীন ভারত থেকে অস্ত্র সংগ্রহ এবং ভারত থেকে ছত্রীসেনা এনে টাঙ্গাইল মুক্ত করে ১৬ ডিসেম্বর পাকবাহিনীর আত্মসমর্পণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন।